মুজিববর্ষে একটি ঘর চান আটোয়ারীর অসহায় বৃদ্ধ দম্পতি

129

মামুনুর রশীদ, পঞ্চগড় করেসপন্ডেন্ট:
মুজিব শতবর্ষে সরকারের কাছে একটি ঘর চান পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার অসহায় বৃদ্ধ আব্দুল হক(৬৮) ও তার স্ত্রী রহিমা বেগম(৬৩)।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার তোড়িয়া ইউনিয়নের দারখোর ধনুপাড়া এলাকার গরীব অসহায় দিনমজুর
আব্দুল হক অসুস্থ্য স্ত্রীকে নিয়ে বাশ খর আর পলিথিন দিয়ে নির্মিত ভাঙ্গা কুড়ে ঘরে অতি কষ্টে জীবন পার করছেন।

বৃদ্ধ আব্দুল হক বলেন, বর্ষাকালে ঘরের ভাঙ্গা ছিদ্র দিয়ে বৃষ্টির পানি পরে। বৃষ্টি থেকে রক্ষাপেতে উপড়ে পলিথিন দিয়ে ঢেকে দিয়েছি তবুও পানি পড়ে। বৃষ্টি পানিতে বিছানা ভিজে যায় তাই অসুস্থ স্ত্রীকে নিয়ে ঘুমাতে পারিনা। অর্থের অভাবে ঘর নির্মান করতে পারছিনা। আমি সরকারের নিকট একটি ঘর চাই।

তিনি আরো জানান, হাপানি রোগ আর বয়সের ভারে কাজও করতে পারেন না। কষ্ট হলেও ক্ষুধা মিটাতে মানুষের খেত-খামারে দিনমজুরের কাজ করে যা আয় করেন তা দিয়ে লবন ভাত খেয়ে কোন রকম জীবন কাটান স্বামী-স্ত্রী । কোন সময় না খেয়ে থাকতে হয় তাদের। সন্তান থাকলেও তারাও তেমন স্বচ্ছল নয়।

আব্দুল হকের স্ত্রী রহিমা বেগম(৬৩) বলেন, আমি চোখে দেখি না, স্বামী একদিন কাজ করলেও হাপানী রোগের কারনে ৪ দিন বসে থাকে। আমারও নিজেরও শারীরিক অসুস্থ্যতা রয়েছে স্বামীকে নিয়ে জীবন যুদ্ধে মানবেতর জীবন পার করছি। সরকারের কাছে আমরা থাকার একটি ঘর চাই।

আব্দুল হক অভিযোগ করে বলেন, ৫ বছর হয়ে গেলো চেয়ারম্যান ও মেম্বার আমাদের অসহায়ত্ব দেখা পায় না। সরকারিভাবে থাকার জন্য একটি ঘর বরাদ্দ দিলে বাকি জীবন সুখে থাকতে পারি।

স্থানীয়রা জানায়, আব্দুল হক ওই এলাকায় সবচেয়ে দরিদ্র ও অসহায় ব্যাক্তি। তাকে একটি ঘর দেওয়ার কথা বলেন।

এ ব্যাপারে আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) আবু তাহের মো: সামসুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিষয়টি আমি দেখবো এবং প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করবো।